লক্ষ্মীপুরে দেড় বছরের শিশুর শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশের আসামি খুকি রিমান্ডে - pratidinkhobor24.com

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 9 June 2020

লক্ষ্মীপুরে দেড় বছরের শিশুর শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশের আসামি খুকি রিমান্ডে



 নিউজ ডেস্কঃ দেড় বছরের নিষ্পাপ শিশু হাবিবের শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করায় দায়েরকৃত  মামলার আসামি খুকি বেগমকে একদিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত। আজ ৯ জুন মঙ্গলবার বিকেলে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত আমলি অঞ্চল সদরের বিচারক মোহাম্মদ আবদুল কাদের এ আদেশ দেন। 
আসামিকে রিমান্ডে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদী পক্ষের আইনজীবী রাসেল মাহমুদ মান্না। তিনি জানান, সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুজ্জামান আসামি খুকির পাঁচদিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করে। আদালতের বিচারক আবেদনটি আমলে নিয়ে একদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন। 

জানা গেছে, গত মাসে ১৮ মাসের শিশু হাবিবের শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন দেয়ার অভিযোগে তার দাদা লাতু মিয়া গত ২৮ মে বৃহস্পতিবার  সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এতে খুকি বেগম (৪০) কে একমাত্র আসামি করা হয়। ঐ রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে সদর উপজেলার চর পার্বতীনগর গ্রামের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। খুকি ওই গ্রামের সৌদী প্রবাসী আবুল কাশেমের স্ত্রী এবং সে বর্তমানে লক্ষ্মীপুর জেলা কারাগারে আছে।
জানাযায়,  পারিবারিক পূর্ব শত্রুতার কারনে আসামি খুকি হত্যার উদ্দেশ্যে শিশু হাবিবের শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ আসামীকে গ্রেপ্তার করার পর থেকে ভূক্তভোগী পরিবারকে আসামী পক্ষের লোকজন থেকে নানানভাবে হুমকি দেওয়া ও অভিযোগ পাওয়া যায়।পরিবারের পক্ষ থেকে এই কুখ্যাত ঘাতক নারী  খুকির বেগমের সঠিক বিচারের দাবি জানানো হয়। 
প্রসঙ্গত, শিশু হাবিব একই গ্রামের সৌদী প্রবাসী মো. নুর নবীর ছেলে। গত ১১ মে বিকেলে কৌশলে শিশুটিকে নিজের ঘরে নিয়ে অভিযুক্ত খুকি তিনটি বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করে। পরে শিশুর চিৎকার শুনে তার মা শামছুননাহার শিশুটিকে ঘাতক খুকির ঘর থেকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে কিন্তু এখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে নোয়াখালী রেফার করে।
তখন নোয়াখালী ২৫০ ষয্যার হাসপাতালে নেয়ার হলে এখানে থেকে শিশুটিকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয় হয়। একর্পযায়ে শিশু হাবিবের শারীরিক অবস্হার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালের Itensive Care Unite (ICU) নিয়ে ভর্তি করা হয়। এখন পর্যন্ত শিশুটির অবস্হা  খারাপ হওয়ায় ঢাকা মেডিকেলের নিবিড় পরিচর্যা বিভাগে সংকট জনক অবস্হায় সে চিকিৎসাধীন আছে। 
শিশু হাবিবের শরীরে বিষ প্রয়োগের দিনেই শিশুর দাদি রহিমা বেগম সদর থানায় একটি অভিযোগ করেন, এতে আসামি পক্ষ হুমকি-ধমকি দেয়াতে পরে ২৭ মে রহিমা বেগম বাদী হয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। 
আসামি খুকির ফাঁসির দাবিতে গত ৫ জুন সকালে সদর উপজেলার মাছিমনগর এলাকায় লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের দু’পাশে এক মানববন্ধন হয়।
এদিকে বাদী পক্ষ থেকে জানা গেছে, বর্তমানে আসামি খুকি বেগমকে এই মামলা থেকে বাঁচাতে ও মামলা উঠানোর জন্য এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল জোর চেষ্টা চালাচ্ছে

No comments:

Post a comment

Post Bottom Ad

Pages